ফুয়াদ হাসানের কবিতা




চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতকোত্তর।  পেশা : শিক্ষকতা। 


সহকারী অধ্যাপক, বাংলা বিভাগ, পতেঙ্গা সিটি কর্পোরেশন মহিলা ডিগ্রি কলেজ, চট্টগ্রাম।

প্রকাশিত গ্রন্থ : 
মানুষ মানুষ নয় হোমোসেপিয়ানস (২০০৪, বলাকা);
রাফখাতার কাটাকুটি (২০১০, তেপান্তর);
অ্যা জার্নি বাই অ্যাম্বুলেন্স (২০১৮, বাঙ্ময়);
কাঁটাতারে কারাগারে (২০২১, বেহুলাবাংলা)।


Xপ্রেমিক-প্রেমিকা


X-এর মান দেয়া আছে

দূরতম ঐ Y-এরও

বলো এবার – XY মানটা কত?


ব্লেকবোর্ডে মুখ ঘসতে-খসতে

অঙ্কস্যারের চক – পাউডার!

তোথলামুখে কোনভাবে

ঠিক বোঝাতে পারছে না 'ক'

ক্লাস নাইনের ছেলেমেয়েদের, তিনি তাই

স্রেফ ঘামছেন।


পাশের ক্লাসে হৈ-হুল্লোড় 

বাহ্, চমৎকার মিলে যাচ্ছে XওY

ডাবলX বা YওX

বায়োলজি ম্যাডাম কত সহজে সব

বুঝিয়ে দেন।


বোমারুপাখি


সে উড়ে গেল 

পাপড়ি সেজে পড়ে রয়েছে

কোন পালক

জানলাকাচে 

নাকি আসলে ক্ষুদ্রতম সফেদড্রোন

ফাঁস করতে

গোপনীয়তা 

তারও বুঝি খুব ইচ্ছে জাগে উড়বে

সে সুখটএকু পূরণ করে যুদ্ধবাজ মৃত বাতাস

পোড়ামাটির স্বাদ দুচোখে গেঁথে দূরের

আকাশ ছুঁয়ে 

দেখতে গিয়ে

উড্ডয়নে বিধ্বস্ত ঐ বোমারুপাখি


ব্রাশপ্রিন্ট


সাদা প্রায় ক্যানভাস

পাকাচুলে বুনে দেয় কালোঘাস

চিরুনি সেজেছে হাত

বেরসিক সময়ের অপঘাত

কইঞ্চি আঙুলের ওম

আঁকে মেঠো দুগণ্ডে – সাদাফোম

তাপদাহেও তুষার ভাস্কর্য 

জুতাজোড়ায় কালোর ঐশ্বর্য 

বাড়ায় সে ব্রাশ, সুট-প্যান্টগুলো

থেকে ঝেরে ফেলে সাদাধুলো

দুর্গন্ধ মুখের কমেড ঘসে হারপিক

নিঃশ্বাসে উজ্জ্বলতা আনবে ঠিক 

কুলকুচি মনে হতে পারে ফ্ল্যাশ

অন্যের ব্যবহৃত টুথব্রাশ 

দিয়ে দাঁতমাজা অস্বস্তি আজ

দিনমান করছে বিরাজ


Comments

Popular Posts